ফিশিং ট্রলারে ডাকাতির ঘটনায় দুই জেলে উদ্ধার

0 ৮৯

নিজস্ব প্রতিবেদক,

কক্সবাজার উপকূলবর্তী বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার ট্রলারে ডাকাতির সময় চার জেলেকে সাগরে ফেলে দেওয়ার তিনদিন পর দুই জেলেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছে অপর দুজন।

কক্সবাজার জেলা ফিশিং বোট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন জানান, নিখোঁজ জেলেদের মধ্যে রোববার মধ্যরাতে একজন এবং সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে একজনকে সাগরে মাছ ধরতে যাওয়া জেলেরা উদ্ধার করে। তারা হলেন- কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকূল এলাকার দেলোয়ার হোসেন এবং নবগঠিত ঈদগাঁও উপজেলা সদরের মোহাম্মদ জিয়া।

এখনো নিখোঁজ রয়েছেন নোয়াখালী জেলার অলি আহমদ এবং কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকূল এলাকার মো. আনিস।

উদ্ধার ও নিখোঁজেরা সবাই কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকূল এলাকার বাসিন্দা মো. জকারিয়ার মালিকাধীন এফবি হাসান নামের ট্রলারটির জেলে।

এর আগে শুক্রবার (১১ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে কক্সবাজার উপকূলবর্তী বঙ্গোপসাগরের ১৪ বিউ নামক এলাকায় এফবি হাসান সহ চারটি ট্রলারে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এতে বাধা দিলে এফবি হাসানের ১৯ জেলের মধ্যে চারজনকে সাগরের পানিতে ফেলে দেয় দস্যুরা।

তবে ঘটনার ব্যাপারে পুলিশসহ প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কারও কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

উদ্ধার জেলেদের বরাতে বোট মালিক নেতা দেলোয়ার হোসেন বলেন, ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ চার জেলে সাগরের পানিতে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত ভাসছিলেন। এক পর্যায়ে অন্য ট্রলারের জেলেরা রোববার মধ্যরাতে নিখোঁজ দেলোয়ার হোসেনকে এবং সোমবার সকালে মোহাম্মদ জিয়াকে উদ্ধার করেছে।

উদ্ধার দুজনেই এখন নিজেদের বাড়িতে অবস্থান করছেন বলে জানান তিনি।

রিপ্লাই করুন

Your email address will not be published.