দ্বীনি শিক্ষার বিস্তারে জামিয়াতুল ইমাম মুসলিম (রহঃ) গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে : সৌদি রাষ্ট্রদূত

0 ১২৭

গোলাম আজম খান,

জামিয়াতুল ইমাম মুসলিম (রহঃ) কক্সবাজার শিরক ও বেদাতমুক্ত শিক্ষায় অনন্য ভূমিকা রাখছে মন্তব্য করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত ইসা বিন ইউসেফ বিন আল-দুহাইলান। তিনি বলেন, ইসলাম মধ্যপন্থার ধর্ম। শান্তি ও সহাবস্থান নীতিতে বিশ্বাসী। মুসলমানদের চরমপন্থা ও উগ্রতা পরিহার করতে চলতে হবে।

ইসলামে কোরআনের পাশাপাশি হাদিসও গুরুত্বপূর্ণ সোর্স। হাদিসের ওপর আরো উচ্চতর গবেষণার জন্য ছাত্রদের প্রতি সৌদি আরবের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে গমনের আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রদূত।

মঙ্গলবার (২০ জুন) দুপুরে পর্যটন শহর কক্সবাজারের ঐতিহ্যবাহী জামিয়াতুল ইমাম মুসলিম (রহঃ) পরিদর্শনকালে সংক্ষিপ্ত সভায় তিনি এসব কথা বলেছেন।

বেলা ২টার দিকে রাষ্ট্রদূত জামিয়ার ক্যাম্পাসে পৌঁছালে প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হাফেজ সালাহুল ইসলামের নেতৃত্বে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকার জনগণ তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

সৌদি রাষ্ট্রদূত দোহাইলাইন উপস্থিত শিক্ষক শিক্ষার্থী ও জনতার সংবর্ধনার জবাবে বলেন, সৌদি বাদশা সালমান ও প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান বাংলাদেশী জনগণকে সালাম জানিয়েছেন।

বিশেষ করে কক্সবাজারে সফরকালে সম্বর্ধিত করায় অভিভূত তিনি। জামেয়ার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক সালাহুল ইসলামের আরবী বক্তৃতায় সৌদি রাষ্টদূত মুগ্ধ হন। পরে জামিয়াতুল ইমাম মুসলিম (রহঃ) কক্সবাজার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক সালাহুল ইসলাম রাষ্ট্রদূতকে নিয়ে দৃষ্টিনন্দন নির্মাণ শৈলী ও সৌদির স্থাপত্য মসজিদ ও জামিয়ার বিভিন্ন ক্লাস রুম ঘুরে দেখান।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন চট্টগ্রাম-১৫ (লোহাগাড়া-সাতকানিয়া) আসনের সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী।

সৌদি রাষ্ট্রদূতকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। জামিয়াতুল ইমাম মুসলিম (রহঃ) কক্সবাজার থেকে ছাত্ররা উচ্চতর পড়াশোনার জন্য সৌদি আরব যেতে আগ্রহী হলে ঢাকাস্থ সৌদি দূতাবাস সহযোগিতা দিবে বলে জানান সৌদি রাষ্ট্রদূত ইসা বিন ইউসেফ বিন আল-দুহাইলান।

তিনি বলেন, সৌদি সরকার সব সময় বাংলাদেশ এবং এই দেশের জনগণের প্রতি সমর্থন ও সহযোগিতা দিয়ে আসছে। বিশেষ করে বর্তমানে ২৮ লাখ বাংলাদেশী শ্রমিক সৌদি আরবে কর্মরত আছেন। আগামীতে আরো শ্রমিক নেয়া হবে এবং বাংলাদেশী শ্রমিকেরা বিশ্বস্ত বলেও জানান তিনি।

হজ ব্যবস্থাপনায় আধুনিকায়নসহ হাজীদের সহজভাবে হজ আদায় করার জন্য অনেক কার্যক্রম আধুনিক করা হয়েছে বলেও জানান সৌদি রাষ্ট্রদূত।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে সৌদি আরবের শিক্ষা ও উন্নয়ন খাতে যে কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে আগামীতে এ সহযোগিতা আরো বৃদ্ধি করা হবে।

সৌদি রাষ্ট্রদূত ইসা বিন ইউসেফ বিন আল-দুহাইলানকে জামিয়াতুল ইমাম মুসলিম (রহঃ) এর পক্ষ থেকে সম্মানা ক্রেস্ট তুলে দেন প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হাফেজ সালাহুল ইসলাম। একই সময় প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী এমপিকেও সম্মানা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

এসময় জামিয়া দারুল মা’রিফ চট্টগ্রামের নায়েবে মোহতামিম ফুরকান উল্লাহ খলীল, ঝিলংজা ইউপি চেয়ারম্যান টিপু সুলতান, ইমাম মুসলিম মাদ্রাসার সহকারী পরিচালক সাঈদ নিজামী, ক্বারী ওসমানসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

রিপ্লাই করুন

Your email address will not be published.