ছাগলে খেয়েছে ক্ষেত, সংঘর্ষে ১ নারী নিহত

0 ৬৬

চকরিয়া প্রতিনিধি,

চকরিয়ায় ছাগলে বাদাম ক্ষেত খাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষে ১ নারী নিহত এবং ৮ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (৩ মার্চ) রাতে চকরিয়া উপজেলার সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পাহাড়তলী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, নিহত কুলছুমা বেগম (৪০) চকরিয়ার সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পাহাড়তলী এলাকার নুর মোহাম্মদের স্ত্রী।

চকরিয়া থানার ওসি আরও জানান, চকরিয়ার সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের পাহাড়তলী এলাকার বাসিন্দা নুর মোহাম্মদ ও মো. জাকরিয়া পরস্পর প্রতিবেশী। শুক্রবার বিকালে জাকরিয়ার পোষা ছাগল নুর মোহাম্মদের ক্ষেতের বেশকিছু বাদাম গাছ খেয়ে ফেলে। এ নিয়ে দুই পরিবারের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষে এক নারী নিহত এবং অন্তত ৮ জন আহত হন।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম বলেন, ‘বিকালে জাকরিয়ার পোষা একটি ছাগল নুর মোহাম্মদের ক্ষেতের বেশকিছু বাদাম গাছ খেয়ে ফেলে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নুর মোহাম্মদের স্ত্রী কুলছুমা বেগম ছাগলটি বেঁধে রাখে। পরে জাকরিয়ার স্ত্রী ছাগলটি ফেরত চাইলেও দেননি। এ নিয়ে সন্ধ্যায় স্থানীয় ইউপি সদস্য উভয়পক্ষের লোকজনের মধ্যে শালিসের মাধ্যমে বিরোধ মিমাংসা করেন। পরে ছাগলটি ফেরত দেওয়া হয়।’

শালিসের পর উভয়পক্ষের লোকজন নিজেদের বাড়িতে ফিরে যায়। পরে ঘটনার জেরে কুলছুমার সঙ্গে জাকরিয়ার স্ত্রীর মধ্যে তর্কাতর্কির ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে দুই পরিবারের পুরুষ সদস্যরাসহ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটার আঘাতে উভয়পক্ষের অন্তত ৯ জন আহত হন।

ঘটনায় আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক গুরুতর আহত ৫ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) পাঠায়। সেখান থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে কুলছুমা বেগমের মৃত্যু হয় বলে জানান ইউপি চেয়ারম্যান আজিমুল হক।

রিপ্লাই করুন

Your email address will not be published.